Kurulus episode 105 Bangla

Kurulus Osman Episode 105 Bangla Subtitles

কুরুলুস উসমান এপিসোড ১০৫ বাংলা সাবটাইটেল

বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম

গত পর্বের সমাপ্তিতে আমরা যেমনটি দেখেছিলাম যে ওসমান বে একটি গুহায় কনুর আল্পকে বাচানোর জন্য গেলে সেখানে ওলোফ আগে থেকে ফাদ পেতে রাখে এবং একটি ভয়ংকর বিস্ফোরণ ঘটিয়ে গুহাকে মাটিতে ধসিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে। যাতে ওসমান বে এবং তার আল্পরা সবাই মারা যায়৷ কিন্তু একটি প্রবাদ আছে “রাখে আল্লাহ মারে কে” ঠিক তেমনি আল্লাহর রহমতে ওসমান বে সুস্থ অবস্থায় অক্ষত থেকে তার আল্পদের সাহায্য করতে থাকে এবং গুহা থেকে বের হওয়ার উপায় খুজতে থাকে।

ওসমান বে গুহার একপাশ থেকে পাথর সরিয়ে ফেলার চেষ্টা করতে থাকে যাতে তাদের বের হওয়ার জন্য রাস্তা করতে পারে। ঠিক সেই সময় কুমরাল আবদাল চলে আসেন এবং গুহার বাহির থেকে পাথর সরিয়ে সহায়তা করতে থাকে। এভাবে দীর্ঘ সময় চেষ্টার পরে ওসমান বে ও তার আল্পরা গুহা থেকে নিরাপদে বের হয়ে আসতে সক্ষম হয়।

ওলোফের নতুন পরিকল্পনা: ওলোফ নতুন পরিকল্পনা শুরু করেছে ইনেশিহারে দখল করার। সে ভাবছে যে যেহেতু ওসমান নেই তাই সে খুব সহজেই তুর্কিদের ছিন্নভিন্ন করে হারানো দূর্গ দখল করতে পারবে। তার তাই গুহার বাহির ২জন সৈন্য রেখে সে চলে যায় কান্তাকাজানোসের কাছে। সে এবং কান্তাকাজানোস দুইজনে মিলে নতুন পরিকল্পনা করতে থাকে। তারা সমগ্র তুর্কীদের নাম নিশানা মুছে ফেলার চেষ্টা করতে থাকে।

ইনেশিহারের অবস্থা :ওসমান বে না থাকার কারনে ইনেশিহারে মালহুন হাতুন প্রশাসনিক সকল কাজ দেখাশুনা করতে থাকেন। কিন্তু দীর্ঘ সময় ওসমান বে ফিরে না আসায় তারা কিছুটা বিচলিত হয়ে পড়ে। এমন অবস্থায় মালহুন হাতুন আকতেমুরকে বসতীর পাশে আল্পদের সংখ্যা বাড়ানোর নির্দেশ দেয়। আগে যে জায়গায় দুইজন আল্প ছিল সেখানে পাঁচজন করতে বলে। সকল বে দের খবর দিতে বলে যাতে অতিদ্রুত একটি রাজসভা করা যায়।

ওরহান বের রাজসভা পরিচালনা :ওসমান বের অনুপস্থিতে মালহুন হাতুন ও বালা হাতুন এর সম্মতিতে ওরহান বে রাজসভা পরিচালনা করেন। যেখানে আগত বেরা প্রথমে কিছুটা তাচ্ছিল্য করে দেখার চেষ্টা করলেও ওরহান বে এর দুরদর্শিতার কারনে সেটা করতে পারে নাই।

বাইন্দার বে ওরহান বে কে কিছুটা বিচলিত করার চেষ্টা করে৷ ওরহান বে কে ওসমান বের বিষয়ে প্রশ্ন করলে ওরহান বে তার সামনে দাড়িয়ে বলে যে “আমি আপনাকে ওসমান বে সম্পর্কে জানাবো কিন্তু তার পূর্ব পর্যন্ত হয়তো আপনাকে বন্দী থাকতে হবে অথবা আপনার গরদান কটা যাবে”। এই কথার মাধ্যমে সকল বেরা সংযত আচারন করতে শুরু করে।

মার্তা ও বাইন্দার বের মাঝে ব্যবসায়িক চুক্তি :রাজসভা শেষ করার পরে বাইন্দার বের সাথে মার্তা সাক্ষাৎ করে এবং তার থেকে ইনেশিহার ও ওসমান বের খবর জানতে নানা কৌশলে প্রশ্ন করতে থাকে। কিন্তু বাইন্দার বে কিছু না জানার কারনে সেও ওসমান বের বিষয়ে কোন খবর তাকে দিতে পারে না। মার্তা ব্যবসার জন্য একটি চুক্তি প্রস্তাব করে যেখানে মালামাল দিবে বাইন্দার বে এবং ক্রেতা খুজে দিবে মার্তা। লাভের টাকা অর্ধেক করে ভাগ হবে। কিন্তু বাইন্দার বে বলেন যে লাভের অর্থ তিন ভাগের দুইভাগ তাকে দিতে হবে। মার্তা এই প্রস্তাবেও রাজি হয়ে যায়।

মারমারাজিক বিজয়ের পরিকল্পনা ঃওসমান বে গুহা থেকে বের হয়ে আল্পদের পূর্বের বসতীতে চিকিৎসা নিতে পাঠায়। বালা হাতুন এর সাথে ওসমান বে একটি গোয়েন্দা দলের সাথে সাক্ষাৎ করে মারমারাজিকের অবস্থা জানতে চাইলে তারা বলে তুরহান আল্প কে বন্দী রাখা হয়েছে এবং ইনেশিহার দূর্গ দখল করতে অধিকাংশ সৈন্য এখন মারমারাজিকে নেই। ওসমান বে এই সুযোগে মারমারাজিক দখল করতে প্রস্তুতি শুরু করেন।

আকতেমুর ও আলচেচিক: একটি বিখ্যাত প্রবাদ রয়েছে যে “প্রেম পড়লে মানুষ অন্ধ হয়ে যায়” ঠিক তেমনি আকতেমুর ইনেশিহারের নিরাপত্তা ও পরিস্থিতির দিকে মনোযোগ না দিয়ে সে আলচেচিক এর পিছনে ছুটতে থাকে।

হঠাৎ গত রাতে মালহুন হাতুন ও আলচেচিক এর মধ্যে কথোপকথন সে শুনতে পায় যা তাকে ভিষন কষ্ট দেয়। আর সেই কষ্ট ও অভিমানের কারনে আলচেচিক এর সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করতে সে আলচেচিক এর ছুরি তাকে ফিরিয়ে দিয়ে বলে যে আর কাউকে আঘাত করো না। আলচেচিক এর মা বেঙ্গী হাতুন ও আলচেচিক কে সাবধান করতে থাকে এমনি কি সে আলচেচিক কে প্রহার ও করে।

বেঙ্গী হাতুন ও মালহুন হাতুন : বেঙ্গী হাতুন তার জীবনের নানা রকম কষ্টের কথা মালহুন হাতুন এর সাথে শেয়ার করতে দেখা যায়। ওকতেম বের প্রথম স্ত্রীর প্রতি প্রেম ও তার কবরের পাশে অবস্থান করা নিয়ে বেঙ্গী হাতুন তার কষ্টের কথা মালহুন হাতুন কে জানায়। বেঙ্গী হাতুন আরো বলেন যে তিনি ওকতেম বে কে কোন ছেলে উপহার দিতে পারে নাই এতো দিন তার ভাই বাতুর আল্প ছিল এখন সেও নাই।

একমাত্র তার সম্বল তার মেয়ে আলচেচিক। তিনি তাকে হারাতে চান না। এই সকল কথা বলার মূল উদ্দেশ্য ছিল বালা হাতুনের উপর মালহুন হাতুন যেন ঈর্ষান্বিত হন। কিন্তু মালহুন হাতুন জবাবে বলেন রাষ্ট্র পরিচালনা করতে গিয়ে তারা এইসব নিয়ে চিন্তা করার ও সময় পান না।

বাইন্দার বের ব্যবসায়ী কাফেলা: বাইন্দার বে মালহুন হাতুন থেকে অনুমতি পত্র নিয়ে মারমারাজিকের উদ্দেশ্য রওনা হয়। ওসমান বে পথের মাঝে তাকে থামায় এবং মারমারাজিক বিজয়ের পরিকল্পনা তাকে জানালে সে তার মনের বিরুদ্ধে হলেও তাতে রাজি হয় এবং ওসমান বে ও তার আল্পরা বাইন্দার বে র কারাভ্যানে মারমারাজিক দূর্গের ভিতরে প্রবেশ করে কোন রকম বাধা প্রতিবন্ধকতা ছাড়াই।

মারমারাজিক বিজয় : ওসমান বে ও তার আল্পরা এবং বাইন্দার বে সহ সকলে মিলে কাফেরদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরু করে এবং অতিদ্রুত তারা বিজয় লাভ করে। তুরহান আল্পকে অক্ষত অবস্থায় নিরাপদে উদ্ধার করে। দূ্র্গের প্রধান কমান্ডার রিয়াস কে বন্দী করা হয়। মারমারাজিক বিজয়ের এই খবর পায়রার মাধ্যমে ওলোফের কাছে পৌছে যায়। তখন ওলোফ ইনেশিহার আক্রমণ করা থেকে নিজে সরে আসে এবং সে মারমারাজিকের উদ্দেশ্য রওনা হয়। ফ্রীগ কে মারমারাজিক আক্রমণ করতে আদেশ দেয়।

ওলোফ মারমারাজিকের প্রধান ফটকের সামনে আসলে ওসমান বে দূর্গে সামনের দেয়ালে পতাকা উত্তোলন করে। রাগে ক্ষিপ্ত হয়ে ওলোফ চিৎকার করে বলে ওসমান তোমার মাথা আমি কেটে নিবো জবাবে ওসমান বে তাকে বলে তুমি আরো চিৎকার, কিন্তু করো কোন লাভ নেই। মারমারাজিক এখন তুর্কীদের। এবং সবাই আল্লাহু আকবার বলে স্লোগান দিতে থাকে। আর এই পবিত্র স্লোগান এর মধ্যে দিয়ে এই পর্ব সমাপ্তি হয়।

-লেখক আব্দুল্লাহ ইবনে আজিজ

Watch more

Player 1

Player 2

Player 3 Full Hd

Kurulus Osman Episode 105 Bangla Subtitles google drive link

Kurulus Osman Episode 105 Bangla Subtitles Facebook link

Kurulus Osman Episode 105 Bangla Subtitles telegram link

Watch Kurulus Osman Episode 105 Bangla Subtitles on Youtube

Watch Kurulus Osman Episode 105 Bangla Subtitles on katifamily

Watch Kurulus Osman Episode 105 Bangla Subtitles onsmanonline

Watch Kurulus Osman Episode 105 Bangla Subtitles on Youtube

Watch Kurulus Osman Episode 105 Bangla Subtitles on Dailymotion

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button

Adblock Detected

আপনার ব্রাউজারে এ্যাড ব্লক করা। দয়া করে এটি বন্ধ করে পুনরায় প্রবেশ করুন।